কীভাবে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করতে হয় – How To Change Font Style On Vivo Mobile

 How To Change Font Style On Vivo Mobile In Bangla 2022

 

 

আসসালামু আলাইকুম।কেমন আছেন সবাই?আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজ আপনাদের শিখাবো কীভাবে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করতে হয় – How To Change Font Style On Vivo Mobile , আমরা অনেকেই ভিবো কম্পানির মোবাইল ফোন ব্যবহার করে থাকি । সবকিছু ঠিকঠাক আছে কিন্তু সমস্যা হলো , Vivo Mobile এ নিজের ইচ্ছে মত একটি ফন্ট ব্যবহার করা যায় না । তাই আপনাদেরকে দারুন একটি সফটওয়্যার শেয়ার করতে যাচ্ছি । যেটা দিয়ে সহজে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল  পরিবর্তন  পারবেন ।

How To Change Font Style On Vivo Mobile

 

 

কেন ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন

আগেই বলেছি ভিভো ফোনের সবকিছু ভালো হলেও font-style মোটেও ভালো না। আর দুঃখের বিষয় এটা যে ভিবো থেকে অফিশিয়াল ভাবে আমাদের এ ধরনের কোনো সুযোগ সুবিধাও দেয় না । ভাই এত কষ্ট করে এত টাকা দিয়ে মোবাইল কিনতে হয় , তারপরও যদি নিজের ইচ্ছা মত একটি ফন্ট ব্যবহার না করতে পারি। তাহলে কেমন লাগে আপনার আপনারাই বলেন । তারপর মনে হয় যে ফোনটা আছাড় মেরে নষ্ট করে ফেলি‌। ওয়েট ওয়েট আপনি আবার ফোন আছাড় মারতে যাইয়েন না । এর জন্য আমি তো আছি তাইনা , বন্ধুরা মজা করছিলাম কিছু মনে কইরেন না ।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে কেন ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন ? এর একটাই উত্তর ফোনকে আরো অনেক এডভান্টেজ এবং দারুণ লুক আনতে ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন। ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করার পরে আপনার কাছে একটি ভিন্ন ধরনের ফোন মনে হবে এবং ভালো লাগবে।যদিও প্রথম প্রথম কিছুদিন আপনার মনে হবে smart able কিন্তু তারপর আপনার নিজের থেকে ভালো লাগা দেবে। তো আশা করি বুঝতে পারছেন কেন ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কিভাবে ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন ।

কিভাবে ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন

যেহেতু ভিবো কম্পানি অফিশিয়ালভাবে কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়নি এই বিষয়ে । অর্থাৎ আমাদের একটু চালাকি খাটাতে হবে এ বিষয়ে। বুঝেনই তো বাঙালি একটু চালাক না হলে টিকে থাকা অনেক কষ্টকর। তো আর ফালতু প্যাচাল না পাইরা আসল পোস্টে আসা যাক কি বলেন । ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করার জন্য দুই থেকে তিনটি মেথড বা পদ্ধতি অনুসরণ করা যায় । কিন্তু আমি সহজ এবং সঠিক পথ আপনাদের দেখাবো। এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে শুধুমাত্র আপনার কিছু এমবি অর্থাৎ ডেটা খরচ করতে হবে ।

প্রথমত আপনাকে ফোনটির একটি ব্যাকআপ নিয়ে রাখতে হবে। যেহেতু সফটওয়ারটি বা অ্যাপ্লিকেশনটি সরাসরি ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড দেওয়া হবে। তাই ফোনে সেফটির জন্য ব্যাকআপ রাখা অনেক জরুরী। তারপর ধরেন আপনার ফোন ক্রাশ করলেও পরে তা ব্যাকআপ এর রিস্টোর করে সহজেই পূর্বের অবস্থা আনতে পারবেন । এখন আপনারা যদি না জানেন যে ব্যাকআপ কিভাবে নিতে হয়, তাহলে আমার নিচের দেওয়া লিংক থেকে দেখে আসতে পারেন। যে কিভাবে মোবাইল ফোনের জন্য ব্যাকআপ নিতে হয়। (লিংক) তো চলুন এবার দেখা যাক কিভাবে ফন্ট স্টাইল চেঞ্জ করবেন।

যেভাবে ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করবেন

এখন আমরা ফন্ট স্টাইল চেঞ্জ করার জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার করব। তো আপনার ফোনের ইন্টারনেট সংযোগ চালু করুন এবং তারপর গুগল ক্রোম অথবা আপনি যে ব্রাউজার ব্যবহার করেন সেটিতে ক্লিক করে সার্চ বারে যান। অর্থাৎ যেখান থেকে আপনার ব্রাউজারে সার্চ করতে হয়। সেখানে এই লেখাটুকু কপি “Themes Apk 9.3.00 BBK ” করে সার্চ বাটনে ক্লিক করুন । অথবা নিচের দেওয়া স্ক্রিনশটটি ফলো করতে পারেন। যদি ক্রোম ব্রাউজার ব্যাবহার করে থাকেন তাহলে আমার মত ঠিক ওই জায়গায় তে দেখান আমি মার্ক করেছি ওইখানে পেস্ট করে দিন ।
Themes Apk 9.3.00 BBK

 

স্ক্রিনশট এর মতন অনেকগুলো ওয়েবসাইটের লিংক আপনার সামনে আসবে। এখান থেকে প্রথম যেটা আসছে সেটাই আপনাকে ক্লিক করতে হবে। দেখুন ওইটাই এপিকে মিরর নামে ওয়েবসাইট আছে কিনা । এপিকে মিরর ওয়েবসাইটে ক্লিক করুন। বুঝতে অসুবিধা হলে নিচের স্ক্রিনশট দেখুন।
Click The Website Of Apk Mirror

 

তারপর আপনি কনফার্ম হয় হন এবং দেখুন এপিকে মিরর ওয়েবসাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি লেটেস্ট ভার্সন এ আছে। এখানে আরো তিনটি ফন্ট যোগ করা হয়েছে যা আমাদের জন্য সুখবর । তারপর নিচের দিকে স্ক্রল ডাউন করলে। এপিক এটি ইন্সটল করার এবং আপনার ফোনে সেভ করার জন্য অপশন পাবেন না বুঝলে নিচে দেওয়া স্ক্রিনশটে মার্ক করা অংশটিকে ক্লিক করুন। আপনাদের সময় আমার পোস্টে দেখছেন, সে সময় হয়তো বা কালার একটু চেঞ্জ হতে পারে কিন্তু একই জায়গায় ক্লিক করবেন।
Themes Apk 9.3.00 BBK App
আপনার ফোনে অ্যাপটি সেভ হওয়ার পরে ইন্সটল করে নিন। ইনস্টল প্রসেস শেষ হওয়ার পরে আপনার ফোনের হোম বাটনে ক্লিক করুন। তারপর আপনার ফোনের মেইন মেনু অপশন এ দেখুন এপ্লিকেশনটি ইন্সটল হয়েছে কিনা । অ্যাপটি সঠিক ভাবে ইন্সটল করা হলে তাহলে অ্যাপেল আইকন দেখতে পারবেন আপনার মোবাইল মেনুতে। তারপর অ্যাপটিতে ক্লিক করে তার ভিতরে প্রবেশ করুন।

 

তারপর এই স্ক্রিনশটটা দেখানোর জায়গা অর্থাৎ ফন্ট অপশনে ক্লিক করুন এবং তারপর আপনি নিচের স্ক্রীনশট এর মত অনেকগুলো ফন্ট দেখতে পাবেন । এর থেকে যেকোন একটা আপনি ব্যবহার করতে পারবেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। তো এখন আপনার যে ফোনটি পছন্দ হয় সেটার উপর ক্লিক করুন।

 

তারপর নিচের দেখানো স্ক্রীনশট এর মত ফাইলটি আপনার ফোনে সেভ করে নিন এবং এপ্লাই অপশন এ ক্লিক করুন । তারপর দেখুন চমক, এখন আপনি সফলভাবে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করতে পেরেছেন।

 

তো আজকের মত এ পর্যন্তই ছিল। পোস্ট কেমন লেগেছে অবশ্যই বলবেন। আশাকরি আপনি সফলভাবে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল চেঞ্জ করতে পেরেছেন। আমি জানি আপনারা অনেকেই ভিবো ফোন ব্যবহার করে থাকেন এবং এই ব্যাপারটি সম্পর্কে অবগত নন। এখন যেহেতু আপনি অবগত হয়েছেন অর্থাৎ আপনার এ বিষয়ে আপনার বন্ধুকে জানানো জরুরি দায়িত্ব । তাই অবশ্য এই পোস্টটি ভাল লাগলে এবং কার্যকর মনে হলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। দেখা হবে নতুন কোন পোস্টে সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন, খোদা হাফেজ।

2 thoughts on “কীভাবে আপনার ভিবো ফোনের ফন্ট স্টাইল পরিবর্তন করতে হয় – How To Change Font Style On Vivo Mobile”

  1. এই এপ্লিকেশন টি ভিবো কম্পানির সকল ফোনের জন্য কাজ করবে ?

    আমার ভিবো y21 তে কি কাজ করবে? জানাবেন প্লিজ

    Reply

Leave a Comment